কল্যাণী ১২ নম্বর ওয়ার্ডের উদ্যোগে রবীন্দ্র জন্মজয়ন্তী দাগ কাটল আপামর জনতার মনে

0
1510
Kalyani Rabindra Jayanti
Kalyani Rabindra Jayanti
ShyamSundarCoJwellers

কল্যাণী ১২ নম্বর ওয়ার্ডের উদ্যোগে রবীন্দ্র জন্মজয়ন্তী দাগ কাটল

ফারুক আহমেদ

কল্যাণী ১২ নম্বর ওয়ার্ডের উদ্যোগে রবীন্দ্র জন্মজয়ন্তী পালিত হলো যা সকলের মনে দাগ কাটল। ৯ মে ২০১৮ আজ ২৫ বৈশাখ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মদিন যথাযথ মর্যাদার সঙ্গে পালিত হল নদীয়া জেলার কল্যাণী পৌরসভার প্রতিটি ওয়ার্ডে। কল্যাণী শহরের প্রতিটি ওয়ার্ডে কাউন্সিলারের উদ্যোগে মহা আয়োজনে পালিত হয় রবীন্দ্র জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে কচিকাঁচাদের নিয়ে সাংস্কৃতিক নানান অনুষ্ঠান। কল্যাণী ১২ নম্বর ওয়ার্ডের উদ্যোগে রবীন্দ্র জন্মজয়ন্তী পালন ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সকলকেই মুগ্ধ করে। ১২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলার নিবেদিতা বসু জানান, “আমরা প্রতি বছর আমাদের ওয়ার্ডে যথাযত মর্যাদার সহিত রবীন্দ্র জন্মজয়ন্তী পালন করে আসছি। কচিকাঁচাদের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান কবিতা আবৃত্তি, নৃত্য, সঙ্গীত, নাটক ও সমবেত নৃত্য নাট্য ‘তাসের দেশ’ পরিবেশন সহ নানান সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন ছিল যা সকলকেই মুগ্ধ করেছে জেনে আমরা প্রাণিত হলাম।”

শিশু শিল্পী রাইসা নুর কবিতা আবৃত্তি করেন।

রবীন্দ্র জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে এদিন কল্যাণী শহরে প্রতিটি ওয়ার্ডেই রবীন্দ্র জন্মজয়ন্তী উৎসব পালনের সময় বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এর ছবিতে মাল্যদান করা হয়। বিভিন্ন জায়গায় শোভাযাত্রা বের করা হয়। কল্যাণীর বিভিন্ন ওয়ার্ডে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রায় ব্যাপক সাড়া পড়ে। সমগ্রভাবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন রমা পাল, খুশি রায় চক্রবর্তী, মনীষা বন্দ্যোপাধ্যায়, পলাশী মাইতি, হীরা পারভিন।

রবীন্দ্র জন্মোৎসব কমিটির এক সদস্য জানান, এই উপলক্ষে তাদের তরফে দুদিন ব্যাপী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজনের মধ্য দিয়ে নদীয়া জেলার প্রতিটি ব্লকের বিভিন্ন প্রান্তে নানাভাবে এই রবীন্দ্র জন্মজয়ন্তী দিনটি পালন করা হয়েছে অতি গুরুত্ব দিয়ে।

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মদিনে প্রণাম জানিয়ে কিছু তথ্য তুলে ধরলাম।

২৫ বৈশাখ, ১২৬৮ বঙ্গাব্দে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর জন্মগ্রহণ করেন। ২২ শ্রাবণ, ১৩৪৮ বঙ্গাব্দে কবি আমাদের ছেড়ে চলে যান। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ছিলেন, অগ্রণী বাঙালি কবি, ঔপন্যাসিক, সংগীতস্রষ্টা, নাট্যকার, চিত্রকর, ছোটগল্পকার, প্রাবন্ধিক, অভিনেতা, কণ্ঠশিল্পী ও দার্শনিক।তাঁকে বাংলা ভাষার সর্বশ্রেষ্ঠ সাহিত্যিক মনে করা হয়।

রবীন্দ্রনাথকে গুরুদেব,কবিগুরু ও বিশ্বকবি অভিধায় ভূষিত করা হয়। রবীন্দ্রনাথের ৫২ টি কাব্যগ্রন্থ, ৩৮ টি নাটক, ১৩ টি উপন্যাস ও ৩৬ টি প্রবন্ধ ও অন্যান্য গদ্যসংকলন তাঁর জীবদ্দশায় বা মৃত্যুর অব্যবহিত পরে প্রকাশিত হয়। তাঁর সর্বমোট ৯৫ টি ছোটগল্প ও ১৯১৫ টি গান যথাক্রমে গল্পগুচ্ছ ও গীতবিতান সংকলনের অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। রবীন্দ্রনাথের যাবতীয় প্রকাশিত ও গ্রন্থাকারে অপ্রকাশিত রচনা ৩২ খণ্ডে রবীন্দ্র রচনাবলী নামে প্রকাশিত হয়েছে। রবীন্দ্রনাথের যাবতীয় পত্রসাহিত্য উনিশ খণ্ডে চিঠিপত্রও চারটি পৃথক গ্রন্থে প্রকাশিত। এছাড়া তিনি প্রায় দুই হাজার ছবি এঁকেছিলেন। রবীন্দ্রনাথের রচনা বিশ্বের বিভিন্ন ভাষায় অনূদিত হয়েছে। ১৯১৩ সালে গীতাঞ্জলি কাব্যগ্রন্থের ইংরেজি অনুবাদের জন্য তিনি সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন।

Advertisements IBGNewsCovidService
USD

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here