সংখ্যালঘু উন্নয়ন ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিষয়ে মন্ত্রী মুহাম্মদ গোলাম রাব্বানীর সঙ্গে উপাচার্যের বৈঠক

0
198
সংখ্যালঘু উন্নয়ন ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিষয়ে মন্ত্রী মুহাম্মদ গোলাম রাব্বানীর সঙ্গে উপাচার্যের বৈঠক
সংখ্যালঘু উন্নয়ন ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিষয়ে মন্ত্রী মুহাম্মদ গোলাম রাব্বানীর সঙ্গে উপাচার্যের বৈঠক
ShyamSundarCoJwellers

সংখ্যালঘু উন্নয়ন ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিষয়ে মন্ত্রী মুহাম্মদ গোলাম রাব্বানীর সঙ্গে উপাচার্যের বৈঠক

সংবাদদাতা: সংখ্যালঘু উন্নয়ন ও মাদ্রাসা শিক্ষামন্ত্রী মুহাম্মদ গোলাম রাব্বানীর সঙ্গে কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ উপাচার্য অধ্যাপক গৌতম পাল এবং আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মুহাম্মদ আলির সঙ্গে বৃহস্পতিবার বৈঠক হয়।

আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মুহাম্মদ আলি, প্রাক্তন রেজিস্ট্রার ও অধ্যাপক আমজাদ হোসেন, কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ উপাচার্য অধ্যাপক গৌতম পাল এবং উদার আকাশ পত্রিকার সম্পাদক ফারুক আহমেদ রাইটার্স বিল্ডিংয়ে বৈঠক করেন সংখ্যালঘু উন্নয়ন ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিষয়ক মন্ত্রী মুহাম্মদ গোলাম রাব্বানী সঙ্গে। এদিন উদার আকাশ পত্রিকা ও প্রকাশন সংস্থার সম্পাদক ফারুক আহমেদ ও কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ উপাচার্য অধ্যাপক গৌতম পাল, আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মুহাম্মদ আলি ও অধ্যাপক আমজাদ হোসেন মন্ত্রীর হাতে উদার আকাশ পত্রিকার বিশেষ সংখ্যা এবং উদার আকাশ প্রকাশনা সংস্থার কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ গ্রন্থ তুলে দেন। উপস্থিত ছিলেন সংখ্যালঘু উন্নয়ন ও মাদ্রাসা শিক্ষা দফতরের পিএস জুলফিকার হাসান, নির্বাহী সহকারি সাবির আজহারী।

আধুনিক শিক্ষা প্রসার ঘটাতে সংখ্যালঘু উন্নয়ন মন্ত্রী মুহম্মদ গোলাম রাব্বানী বিশেষ উদ্যোগ নিচ্ছেন বলে তিনি জানান। সেই সব বিষয়ে তিনি দীর্ঘ আলোচনা করেন।

তিনি উল্লেখ করেন, সংখ্যালঘু সমাজের কল্যাণে আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়কে সঠিকভাবে পরিচালনা করতে হবে, সেই বিষয়ে তিনি উপাচার্যকে বিশেষ বার্তা দেন। সব সংখ্যালঘুর কল্যাণের প্রয়োজনে আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়নের পাশাপাশি ইংরেজি মিডিয়াম স্কুলেরও খুবই দরকার। বাংলা মিডিয়াম স্কুলের পাশাপাশি ইংরেজি মিডিয়াম স্কুলের সংখ্যাও বাড়াতে হবে। সংখ্যালঘু সমাজের উন্নয়নে সংখ্যালঘু সমাজকেই ব্যাপকভাবে এগিয়ে আসতে হবে। এ দিনের আলোচনায় মন্ত্রী একথা ব্যক্ত করেন।

বাংলার মানুষের কল্যাণে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নয়া নজির সৃষ্টি করেছেন। নানান উন্নয়ন মূলক কর্মসূচি বাস্তবায়নে এগিয়ে এসেছে তৃণমূল কংগ্রেসের সরকার। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তৃতীয় বার বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন এবার দেশের কল্যাণে বিজেপির পতন সুনিশ্চিত করতে বিরোধী জোটের সমন্বয়কারী প্রধান সেনাপতি হয়ে এগিয়ে এলেন। স্বাধীন দায়িত্ব প্রাপ্ত সংখ্যালঘু উন্নয়ন মন্ত্রী মুহাম্মদ গোলাম রাব্বানীর প্রতি সাধারণ মানুষ আস্থা রাখছেন। তিনি সংখ্যালঘু কল্যাণে কতটা কাজ করতে পারবেন তা সময় বলবে।

Advertisements IBGNewsCovidService
USD