মুক্ত আসর–বাংলাদেশ ইতিহাস অলিম্পিয়াড আয়োজনে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর আর্ন্তজাতিক সম্মেলন

0
410
মুক্ত আসর–বাংলাদেশ ইতিহাস অলিম্পিয়াড আয়োজনে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর আর্ন্তজাতিক সম্মেলন
মুক্ত আসর–বাংলাদেশ ইতিহাস অলিম্পিয়াড আয়োজনে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর আর্ন্তজাতিক সম্মেলন
Azadi Ka Amrit Mahoutsav

মুক্ত আসর–বাংলাদেশ ইতিহাস অলিম্পিয়াড আয়োজনে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর আর্ন্তজাতিক সম্মেলন

ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের দ্বিশত জন্মবর্ষ উপলক্ষ্য করে অনলাইনে ‘২০০ বছরে বিদ্যাসাগর’শীর্ষক শিরোনামে মুক্ত আসর ও বাংলাদেশ ইতিহাস অলিম্পিয়াড জাতীয় কমিটি আায়োজন করেছিল চার দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সম্মেলন।

বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টম্বর) সন্ধ্যায় ৬ টায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান মাধ্যমে চারদিনের এই সম্মেলন উদ্বোধন করা হয়। বাংলাদেশ ইতিহাস অলিম্পিয়াড জাতীয় কমিটির সভাপতি সেলিনা হোসনের সভাপতিত্বে উদ্বোধন করেন ভারতের প্রখ্যাত শিক্ষাবিদ, গবেষক ও সাহিত্যিক পবিত্র সরকার। অনুষ্ঠান চলে ২৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

এছাড়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ইতিহাস অলিম্পিয়াড জাতীয় কমিটির সভাপতিমন্ডলীর সদস্য অধ্যাপক ড. এ কে এম শাহনাওনাজ, অধ্যাপক ড. মো: এমরান জাহান, রাশেদা নাসরীনসহ প্রমূখ।

চার দিনের এই সম্মেলনে ৩টি দেশ থেকে ১২ জন খ্যাতিমান গবেষক, শিক্ষাবিদ ও সাহিত্যিকরা অংশ নিয়েছিলেন। অনুষ্ঠানে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের উপরে গুরুত্বপূর্ণ ১২টি বিষয়ের উপর প্রবন্ধ উপস্থাপনা করা হয়।

মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন ভারতের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজির প্রাপ্তন অধ্যাপক ধর্মদাস ঘোষ। রাত ৮ টার প্রথম অধিবেশনে বিদ্যাসাগর ও এই সময়ে শিরোনামে প্রবন্ধ উপস্থাপন করলেন রবীন্দ্র ভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রান্তন উপাচার্য্য অধ্যাপক পবিত্র সরকার।

চারদিনের এই আর্ন্তজাতিক সম্মেলনে প্রবন্ধ পাঠ করলেন ভারতের প্রখ্যাত গবেষক ও লেখক ড. অমিয় কুমার সামন্ত, বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞানের অধ্যাপক ড. রাজকুমার কুঠারী, কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন অধ্যাপক ড. বরুণ কুমার চক্রবর্তী, গবেষক বিনয় কুমার রায়চৌধুরী, যুক্তরাজ্যে থেকে কবি শামীম আজাদ, বাংলাদেশের কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন, গবেষক মোহাম্মদ আবদুল হাই,জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক ড. এ কে এম শাহনাওয়াজ, কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. শেখ রেজাউল করিম ও মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর সরকারি কলেজের সহযোগী অধ্যাপক ড. কুদরদ–ই–হুদা।

আয়োজন সম্পর্কে বাংলাদেশ ইতিহাস অলিম্পিয়াড জাতীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও মুক্ত আসরের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কবি আবু সাঈদ বলেন, ‘ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের অবিস্মরণীয় অবদান বাঙালি সমাজ কোনো দিন ভুলবে না। তিনি আমাদের কাছে অবিনশ্বর হিসেব থাকবেন।’

আয়োজনটি বাংলাদেশ ইতিহাস অলিম্পিয়াড ফেসবুক পেজ ও ইউটিউব থেকে সরাসরি সম্প্রচারিত হয়।

২০০ বছরে বিদ্যাসাগর শীর্ষক আন্তর্জাতিক সম্মেলনে সহযোগিতায় স্বপ্ন ‘৭১ প্রকাশন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গবেষণা সংসদ, ট্রাভেলেটস অফ বাংলাদেশ, সিনু ও ভারতের প্রকাশনা সংস্থা উদার আকাশ।

ফারুক আহমেদ, সম্পাদক উদার আকাশ জানালেন, “দ্বিশতবর্ষে শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেন করতে ঈশ্বরচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়-এর উপর আন্তর্জাতিক ওয়েবিনার সফল হয়েছে। “উদার আকাশ প্রকাশন উদার জীবনের অন্বেষণ” এই মহা আয়োজনে সামিল হয়েছে এবং এই মহত্তর সম্মেলন দুই বাংলার মানুষের মনে দাগ কেটেছে। ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর মনুষ্যত্ব জাগরণের প্রাথমিক শিক্ষাদানে বড় ভূমিকা পালন করেছিলেন।”

মুক্ত আসর–বাংলাদেশ ইতিহাস অলিম্পিয়াড আয়োজনে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর আর্ন্তজাতিক সম্মেলন
মুক্ত আসর–বাংলাদেশ ইতিহাস অলিম্পিয়াড আয়োজনে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর আর্ন্তজাতিক সম্মেলন
Advertisements
IBGNewsCovidService
USD